Facebook
 
 

সূত্র

Aroon Up = ((Number of periods - number of periods since highest price) / number of periods) * 100

Aroon Down = ((Number of periods - number of periods since lowest price) / number of periods) * 100

লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যবহার

স্টক ও কমোডিটি মার্কেটে ব্যবহৃত আরুন নির্দেশকের ক্লাসিক্যাল পদ্ধতি বর্তমান সময়ের মুদ্রা বাজারে ব্যবহার করা যাবে না।

তাই বাজারের ভুল দিকের ফাঁদে আটকা না পড়ার জন্য নির্দেশকের দেওয়া সঠিক সংকেতগুলো গ্রহণ করা প্রয়োজন।

আরুন নির্দেশকের প্রধান সংকেতটি দেওয়া হয় যখন আরুন আপ (সবুজ দাগ দ্বারা চিহ্নিত) এবং আরুন ডাউন (লাল দাগ দ্বারা চিহ্নিত) পরস্পরকে অতিক্রম করে।

যখন আরুন আপ নিচ থেকে আরুন ডাউনকে অতিক্রম করে, তখন মধ্য মেয়াদি উচ্চ প্রবণতার সম্ভাবনাকে নির্দেশ করে। যখন আরুন আপ উপর থেকে আরুন ডাউনকে অতিক্রম করে, তখন অর্ডার থেকে প্রস্থান করার প্রস্তুতি নিতে হবে।

আরুন আপ উপর থেকে যখন আরুন ডাউনকে অতিক্রম করে, তখন নিম্ন প্রবণতার সম্ভাবনাকে নির্দেশ করে, এমন পরিস্থিতিতে বিক্রি করে দেওয়াই ভাল। সংকেত লাইনগুলো বিপরীত দিক থেকে পরস্পরকে অতিক্রম করলে অর্ডার ক্লোজ করে দেওয়া যেতে পারে।

শতকারা ৪০ ভাগের উপরে এবং শতকারা -৪০ ভাগের নিচের অঞ্চলকে ইক্সট্রিম জোন বলা যায় (যা অতিরিক্ত বিক্রয় বা অতিরিক্ত ক্রয় অঞ্চল নয়)। এই অঞ্চলে সংকেত সংঘঠিত হলে তখন এটা সংকেতের মান বাড়িয়ে দেয় এবং এর ফলে মূল্য আরও বৃদ্ধি পেতে পারে।

আরও একটি শক্তিশালী ট্রেডিং সিগন্যাল হল প্রাইস এ্যাকশন ও আরুন আপের মধ্যকার ডাইভারজেন্স।

মূল্যরেখা নিম্নগামী হওয়ার সময় আরুন আপ উর্ধ্বগামী হলে, মূল্য নিম্নগামী থেকে উর্ধ্বগামী হতে পারে(ডাইভারজেন্স সিগন্যাল)।

মূল্যরেখা উর্ধ্বগামী থাকার সময় আরুন আপ নিম্নগামী হলে, মূল্য কমে যেতে পারে।

আরুন নির্দেশক

ইন্সটাফরেক্স আরুন পরিমিতি

Aroon_Period = 9

ডাউনলোড


তালিকায় ফিরে যান
এখন কথা বলতে পারবেন না?
আপনার প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন চ্যাট.