Facebook
 
 

এই দুটি বিষয় কি বোঝায়? এই প্রকার ট্রেডিং, মার্কেটে দৈনিক মুদ্রামূল্য উঠানামা থেকে মুনাফা অর্জন করার সুযোগ দেয়। এসব লেনদেন দুই মিনিটের বেশি খোলা অবস্থায় ঘটেনা। একটি একক পিপ্সিং বা স্কাল্পিং লেনদেন আপনাকে বেশি মুনাফা দেবে না, যে কারণে এই দুই প্রকার ট্রেডিং পদ্ধতিতে অবস্থানগুলো যথাসম্ভব বন্ধ থাকে।

পিপার এবং স্কাল্পারদের মাধ্যমে পরিচালিত লেনদেনের সংখ্যা দৈনিক ২০০ এটা যদিও অবিবেচকের মত হবে যদি সকল লেনদেনকে মুনাফাযোগ্য হিসাবে আশা করা হয়। সারা দিন কষ্ট শেষে ফলাফল হিসাবে একটি ভাল পরিমানে মুনাফা হবে। এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য একজনের প্রয়োজন স্টপ-লস বন্ধ করে মূল্যহার খুলে রাখা। এটি লোকসান কমাতে সহায়তা করবে যদি মূল্য বিপরীতমুখীও হয়।

এটা জনশ্রুত একটা ব্যাপার যে ফরেক্স হল বিশ্বে সবচেয়ে তরল বাজার। ফরেক্স মিক্স, পতন এবং পুনরায় উথ্যান, চক্র অতিক্রমের মূল্যসমূহ। যদি একটি মূল্য একদিনে আনুমানিক ৬০ পয়েন্ট অতিক্রম করে, এটার উচ্চতা এবং নিম্নতার ব্যবধান নিছক সারগর্ভ। ঘন্টাপ্রতি মূল্যের উঠানামা ভিত্তিক ট্রেডিং বরঞ্চ বেশি মুনাফা নিশ্চিত করে। যেকারণে পিপ্সিং এবং স্কাল্পিং ট্রেডারদের নিকট খুব জনপ্রিয়। ফরেক্সে নবাগতরা পুনরায় বিনিয়োগ করার সুযোগ গ্রহণ করে, হয়তো এই ভেবে যে, এমন ট্রেডিংএর মাধ্যমে আবশ্যিক মুনাফা করা সম্ভব, এমনকি ধারনাকৃত সমষ্টি যেকোনো প্রকৃত সীমা অতিক্রম করতে পারে। ইন্টারনেটে কিছু ভাগ্যবান ট্রেডারদের নানাবিধ উপায়ে তাদের তহবিল বৃদ্ধির কাহিনি বর্ণিত থাকলেও এরকম ধারণা কদাচিৎ সত্য। প্রকৃতপক্ষে, এই কৌশল আপনাকে কোন সফলতার নিশ্চয়তা দেয় না। আসুন আমরা এর কারণ অনুসন্ধান করি।

প্রথমে, যদি বুলস এবং বেয়ারের শক্তি সম্পর্কে ভুল অনুমান করে থাকেন তাহলে একটি মূল্যহারের নিকট স্টপ-লস পর্যায় বৃদ্ধি, নামমাত্র উঠানামার মাধ্যমে লোকসান বয়ে আনতে পারে। এমনকি ভবিষ্যৎ প্রবণতা আগে ভাগে জানা গেলেও এটা হতে পারে। একটা ভুল করা অনেক বেশি সহজ যদি পুরো একটা দিনের জন্য মূল্যের নির্দেশনা নির্দিষ্ট না করে খুবই অল্পসময়ের(১-২ ঘন্টা) জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

লোকসানের ঝুঁকি নিয়ে নির্দেশনাকে চূড়ান্ত পরিনতি থেকে অব্যাহতি দেয়ার সহজতম উপায় হল এরকম নির্দেশনা না থাকা, কিন্তু পরবর্তীতে আপনার বিপরীতে শক্তিশালী গতিবিধির পর সেখানে অনেক উৎস হারানোর ঝুঁকি চলে আসে। এটা ঘটে যখন মূল্য অনেক বেশিদূর যায় এবং নিকট ভবিষ্যতে এটার প্রাথমিক মূল্যে ফিরে আসার সম্ভাবনা থাকে না। যদি একজন ট্রেডার তার তহবিলের একটা বড় অংশ মার্জিন হিসাবে রেখে দেয় এবং কোন স্টপ-লস পর্যায় স্থাপন করে না তবে, সে একটি ভাল মার্জিন কল পেতে পারে এবং পরবর্তীতে অ্যাকাউন্টের সকল তহবিল হারাতে পারে।

দ্বিতীয়ত, যখন প্রকৃত অর্থ দিয়ে লেনদেন করে তখন অধিকাংশ ট্রেডারগন বিচলিত এবং উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে। নিয়ম হিসাবে, এজাতিয় লেনদেন প্রথমে নমুনা অ্যাকাউন্টে পরীক্ষা করা হয় যতক্ষণ কোন প্রকৃত অর্থ জড়িত না হয়। ফলশ্রুতিতে এটা নষ্ট হওয়ার কোন ঝুঁকি থাকে না। এভাবেই একটি প্রকৃত অ্যাকাউন্ট চালানোর সময় ট্রেডারের আবেগী অবস্থান প্রতিটা পিপ নস্ট করতে পারে যদি মূল্য কোন ভুল নির্দেশনায় চলতে থাকে।

পিপ্সিং এবং স্কাল্পিং প্রকাশ করে যে, একজন ট্রেডারকে ধারাবাহিকভাবে মার্কেটে অবস্থান করতে হয়, যেটা অবশ্যই অনেক চাপ এবং এটা অতিরিক্ত দ্রুত গতিতে অবিবেচনা প্রসূত পদক্ষেপ গ্রহণ করায়।

নিবন্ধগুলোর তালিকায় ফিরে যান
একটি অ্যাকাউন্ট খুলুন
একটি অ্যাকাউন্ট খুলুন
ডিপোজিট করুন
ডিপোজিট করুন
এখন কথা বলতে পারবেন না?
আপনার প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন চ্যাট.