Support service
×

অধ্যায় ৬ - ক্রয়/বিক্রয় হার এবং স্প্রেড

এখন পর্যন্ত, কোট সম্পর্কিত আলোচনায়, আমরা ইচ্ছাকৃতভাবে শুধুমাত্র স্পট (বর্তমান) ফরেক্স বিনিময় হার ব্যবহার করেছি যাতে আমাদের ওয়েবসাইট বোঝা সহজ হয়। যাইহোক, একটি ফরেক্স কোট সবসময় দুটি রেট (মূল্য) নিয়ে গঠিত - বিক্রির হার (বিড) এবং ক্রয়ের হার (আস্ক)। এই দুটি মূল্য সাধারণত ফরোয়ার্ড স্ল্যাশ (/) চিহ্ন দ্বারা পৃথক করা হয় এবং নিচে দেখানো উপায়ে লেখা হয়: আস্ক প্রাইস / বিড প্রাইস ৷ উদাহরণস্বরূপ, USD/JPY ১.০৪.৭৫/১০৪.৮৫।

আস্ক প্রাইস হলো এমন একটি মূল্য যেখানে কোনো পক্ষ আপনার কাছ থেকে বেস কারেন্সি কিনতে চায়। অপ্র দিকে বিড প্রাইস হলো এমন একটি মূল্য যেখানে একটি পক্ষ আপনার কাছে বেস কারেন্সি বিক্রি করতে সম্মত হয়। আপনার জন্য, এটি একটি বিপরীত ক্রয়/বিক্রয় মূল্যের ধারণা। আমাদের ব্যাখ্যা থেকে স্পষ্টভাবে বোঝা যায়, এখানে একজন বিডারের কথা বলা হচ্ছে যিনি ক্রয় এবং বিক্রি করেন, আপনি নন। অন্য কথায়, আপনি যদি কোনো কোটের বেস কারেন্সি কিনতে চান, তাহলে আপনার সেল (আস্ক প্রাইস) -এর উপর ফোকাস করা উচিত। আবার আপনি যদি বেস কারেন্সি বিক্রি করতে চান, তাহলে আপনাকে ক্রয় (বিড প্রাইস) -এর দিকে মনোযোগ দিতে হবে।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি USD/JPY ১০৪.৭৫/১০৪.৮৫ হারে জাপানি ইয়েনের জন্য ১০০ মার্কিন ডলার কিনতে চান, তাহলে আপনার ১০০ x ১০৪.৮৫ = ১০,৪৮৫ জাপানি ইয়েন প্রয়োজন। আপনি যদি ১০০ মার্কিন ডলার বিক্রি করে জাপানি ইয়েন পেতে চান, আপনি ১০০x১০৪.৭৫ = ১০,৪৭৫ জাপানি ইয়েন পাবেন।

অনলাইন ব্রোকারদের প্রদত্ত ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মের উপর নির্ভর করে, বিনিময় হারের গ্রাফিকাল উপস্থাপনা ভিন্ন হয়। যেহেতু বড় সংখ্যাগুলো খুব কমই পরিবর্তিত হয়, তাই সেগুলোই ফরেক্সে অফিসিয়াল কোটগুলোর বিক্রয় হারে (আস্ক প্রাইস) প্রদর্শিত হয়। সুতরাং, উপরে উল্লিখিত USD/JPY কোট এমন দেখতে পারে: USD/JPY ১০৪.৭৫/৮৫৷ ‘বিগ ফিগার’ শব্দটি ১০০ পিপসের বেস নাম্বারকে বোঝায়। সাধারণত, বিক্রয় হারে (আস্ক প্রাইস) শুধুমাত্র শেষ দুটি সংখ্যা প্রদর্শিত হয়।

বিড প্রাইস এবং আস্ক প্রাইসের মধ্যে পার্থক্য কে (বাম-হাত এবং ডান দিকে) স্প্রেড বলা হয়। স্প্রেড হলো এমন একটি উপায় যার মাধ্যমে মধ্যস্থতাকারী (ব্রোকার হাউজ/ ডিলিং কোম্পানি) লাভ করতে পারে।

উদাহরণস্বরূপ, ব্রোকার USD/JPY মুদ্রা-জোড়ার জন্য ১০ পিপ স্প্রেড সহ ১০৪.৭৫/৮৫ ফরেক্স এক্সচেঞ্জ রেট অফার করে। আপনি ১০০ USD বিক্রি করেন এবং ১০০x১০৪.৭৫=১০,৪৭৫ জাপানি ইয়েন পান। একই সময়ে, যদি কেউ এই ১০০ USD ক্রয় করে, ১০০x১০৪.৮৫=১০,৪৮৫ ইয়েন পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে। এইভাবে, ব্রোকার ১০,৪৮৫-১০,৪৭৫ = ১০ ইয়েন লাভ করবে। স্পষ্টতই, ব্রোকার উভয় মুদ্রার লেনদেনেই লাভ করে - অর্থাৎ, যখন কেউ ক্রয় অথবা বিক্রয় করে। এটিই ফরেক্স মার্কেটে ব্রোকারের লাভের মূল নীতি।

হয়ত ১০ ​​ইয়েন লাভ (প্রায় ০.১ USD), ১০০ USD ডিলের তুলনায় কিছুই নয়। এই কারণেই, যখন ডিলের ন্যূনতম ট্রেডের পরিমাণ বড় হয় (ধরা যাক প্রায় ১০০,০০০ USD), তখন এক্সচেঞ্জ অফিসগুলো ফরেক্স কোটগুলোর তুলনায় বড় স্প্রেড ব্যবহার করবে৷ একটি বাস্তব এক্সচেঞ্জ অফিস USD/JPY কোটের জন্য ৬০০ পিপ স্প্রেড সহ নিম্নলিখিত বিনিময় হার অফার করবে: ১০২.০০/১০৮.০০। এই ক্ষেত্রে, ১০০ USD বিক্রি করলে, আপনি ৬০০ জাপানি ইয়েন (বা ৫.৫৬ USD) পাবেন।

আপনি অন্য অধ্যায়গুলোতে প্রয়োজনীয় মুদ্রায় একটি কার্যকর ডিল থেকে আপনার লাভ কীভাবে হিসাব করবেন তা শিখবেন। আপাতত, আপনাকে বুঝতে হবে যে প্রতিটি ফরেক্স কোটে দুটি মূল্য নির্ধারিত থাকে – আস্ক প্রাইস/ বিড প্রাইস - এবং স্প্রেড হল পিপসে হিসাব করা এই মূল্য দুটির পার্থক্য।

স্প্রেড হলো ব্রোকার হাইউজ/ ডিলিং কোম্পানির জন্য  আয়ের একটি উৎস। তাই, সাধারণত ব্যক্তিগত পর্যায়ের ট্রেডারদের অনলাইনে বৈদেশিক মুদ্রার ট্রেডিং সুবিধা দিয়ে থাকেন যেসব ব্রোকার তারা কমিশন গ্রহণ করে না। কমিশনের পরিবর্তে তারা স্প্রেড থেকে লাভ করে থাকে। পরবর্তী অধ্যায়ে, ফরেক্স মার্কেটে পজিশন খোলা এবং বন্ধ করার প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হবে। আপনি জাওন্তে পারবেন কেন উচ্চ স্প্রেড ব্যক্তি পর্যায়ের ট্রডারদের জন্য অনুকূল নয়। আপাতত, আপনাকে বুঝতে হবে যে আপনি যখন কোনো ব্রোকারকে বেছে নেবেন, প্রথমে যে বিষয়টিতে দৃষ্টিপাত করতে হবে তা হল স্প্রেডের পরিমাণ বা পার্থক্য: স্প্রেড যত কম হবে তত ভাল।

কারা এই ক্রয়/বিক্রয়ের হার নির্ধারণ করে? ওরা আসেই বা কোথা থেকে? এই প্রশ্নগুলো মনে আসতেই পারে। যে কোনো মুদ্রার কোট শুধুমাত্র ফরেন এক্সচেঞ্জ মার্কেটে ঐ মুদ্রার সরবরাহ এবং চাহিদার উপর ভিত্তি করে সেট করা হয়। বাজারের সক্রিয়  অংশগ্রহণকারীরাই মূলত মুদ্রা বিনিময় হারকে প্রভাবিত করে (বাজারে অংশগ্রহণকারী এবং তাদের ধরন আগেই আলোচনা করা হয়েছে)। বিনিময় হারে একটি বড় পরিবর্তনের পর, একটি বড় সংখ্যক পরোক্ষ অংশগ্রহণকারী এবং লক্ষ লক্ষ স্বতন্ত্র ব্যবসায়ী বিনিময় হারের আরও পরিবর্তনকে প্রভাবিত করে। যদি বেশিরভাগ বাজার অংশগ্রহণকারীরা একটি নির্দিষ্ট মুদ্রা বিক্রি করতে চায়, তবে এর দাম পড়ে যায়। আর যদি তারা ঐ মুদ্রাটি কেনার প্রবণতা দেখায়, তবে এর দাম বেড়ে যায়। সুতরাং, ট্রেডারের লক্ষ্য হল সময়মতো এই প্রবণতাটি বুঝতে পারা।

বাজারে অংশগ্রহণকারী সবার জন্য স্প্রেডের আকার একই হয় না। মার্কেটের মূল খেলোয়াড় যারা মিলিয়ন মিলিয়ন মার্কিন ডলারে লেনদেন করে, তাদের জন্য স্প্রেডের আকার হয় ন্যূনতম - মাত্র কয়েকটি পিপ, কারণ খুব অল্প স্প্রেডও এই ধরনের ব্যবসায় বড় লাভ আনতে পারে। ছোট খাট ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য, স্প্রেডের আকার বেড়ে যায়, কারণ তারা ছোট তহবিল নিয়ে ট্রেড করে থাকে। অতএব, এক্সচেঞ্জ অফিসে, স্প্রেডের পরিমাণ শত শত পিপ পৌঁছতে পারে।

বিনিময় হার অস্থিতিশীল এবং দ্রুত পরিবর্তন হলে স্প্রেডের আকার বাড়তে পারে। গুরুত্বপূর্ণ কোনো সামষ্টিক অর্থনৈতিক পরিসংখ্যান প্রকাশের সময় যখন ট্রেডের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় (আগামী অধ্যায়গুলোতে মৌলিক বিশ্লেষণের উপাদানগুলোর বিশদ বর্ণনা করা হবে), তখন অনলাইন ব্রোকাররা মাঝে মাঝে স্প্রেডের আকার বাড়িয়ে দেয়। আপনার মনে রাখা উচিৎ ব্রোকার পছন্দ করার ক্ষেত্রে, নির্দিষ্ট স্প্রেড অফার করে এমন ব্রোকার বাছাই করা বাঞ্ছনীয়।

স্প্রেডের আকার কখনও কখনও একটি নির্দিষ্ট মুদ্রার তারল্যের উপর নির্ভর করে। যদি কোনো মুদ্রা-জোড় সক্রিয়ভাবে ফরেক্স মার্কেটে ট্রেড না হয়, তাহলে সংশ্লিষ্ট কোটের স্প্রেড বেশি হবে। ব্যাংক থেকে ব্যাংক কারেন্সি লেন-দেনের ক্ষেত্রে এটি খুবই সাধারণ ঘটনা যখন ব্যাংকগুলো উদীয়মান বাজারের কম তারল্য বিশিষ্ট বিদেশি মুদ্রা বিনিময় করে। ব্যক্তি পর্যায়ের বিনিয়োগকারীরা প্রধানত ফরেক্স মার্কেটে অত্যন্ত তরল মুদ্রা নিয়ে কাজ করে।

বড় বড় ট্রেডারদের ক্ষেত্রে, স্প্রেডের আকার ট্রেডের পরিমাণের উপর নির্ভর করতে পারে। একটি প্রদত্ত মুদ্রার  ডিলের পরিমাণ যদি সাধারণ লেন-দেনের তুলনায় অনেক কমে যায়, স্প্রেড বাড়ানো যেতে পারে। যা ফলে, সমস্ত বড় ট্রেডের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ঝুঁকি রয়েছে। অন্যদিকে, ছোট ট্রেড করার সময় ব্যাংকগুলো বড় ক্ষতির সম্মুখীন হয়।

কোনো ডিলের দুই পক্ষের মধ্যে সম্পর্কও স্প্রেডের আকারকে প্রভাবিত করতে পারে। যদি দুপক্ষের মাঝে একটি শক্তিশালী ব্যবসায়িক সম্পর্ক থাকে, তাহলে তারা একটি ছোট স্প্রেডে একমত হতে পারে। বিপরীতে, যদি ব্যাংক ডিলার একটি নির্দিষ্ট গ্রাহকের সাথে একটি ডুল করতে না চান, তাহলে স্প্রেডটি ইচ্ছাকৃতভাবে বাড়িয়ে দিতে পারেন, যা ঐ গ্রাহককে ট্রেড প্রত্যাখ্যান করতে বাধ্য করে।

এইভাবে, বিড প্রাইস, আস্ক প্রাইস, এবং কোনো কোটে স্প্রেডের আকার হল ফরেক্স মার্কেটে ট্রেড করার মূল ধারণা। ব্যক্তি পর্যায়ের বিনিয়োগকারীদের এই ধারণাগুলো সম্পর্কে ভাল জ্ঞান থাকা আবশ্যক। ফরেক্সে ট্রেডিং –এর ক্ষেত্রে, সমস্ত সিদ্ধান্তই দ্রুত নেওয়া উচিত তাই মৌলিক ধারণাগুলো বোঝার অপারগতা অগ্রহণযোগ্য।

স্বত্তন্ত্র বিনিয়োগকারীদের এ বিষয়ে ভয় পাওয়া উচিত নয় যে ফরেক্স মার্কেটে ডিল সাধারণত কয়েক হাজার মার্কিন ডলারেই করা হয়। মার্জিন ট্রেডিংয়ের নীতি (যা পরবর্তী অধ্যায় সমূহে আলোচনা করা হবে) ট্রেডার কে তার নিজস্ব তহবিলের চেয়ে শতগুণ বেশি ট্রেড করার অনুমতি দিয়ে থাকে।


আপনার মতামত প্রদান করুন

ধন্যবাদ! আপনি কি আরও কিছু যোগ করতে চান?

প্রাপ্ত উত্তর আপনি কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন (ঐচ্ছিক)

আপনার মতামত আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ.
আমাদের অনলাইন সমীক্ষা সম্পূর্ণ করার সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ৷

smile""