Support service
×

অধ্যায় ১০ - মার্জিন ট্রেডিং

পূর্ববর্তী অধ্যায়ে আমরা একটি এক্সচেঞ্জ অফিসে ক্রয়/বিক্রয় কার্যক্রম থেকে আয় করার সুযোগের সাথে ফরেক্সের ট্রেডের তুলনা করেছি। এটা স্পষ্ট যে ফরেক্সের অনেক সুবিধা রয়েছে যা ব্যবসায়ীদের অল্প সময়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ লাভ করার সুযোগ দেয়। প্রধান সুবিধা, যাকে এই ধরনের উপার্জনের "পিরামিডের ভিত্তি"ও বলা যেতে পারে, তা হল ১৯৮৬ সালে ফরেক্সে মার্জিন ট্রেডিং চালু করা।

মার্জিন ট্রেডিং বৈদেশিক মুদ্রার বাজারে তুলনামূলকভাবে অল্প পুঁজির সাথে বিনিয়োগকারীদের কাজ করার সুযোগ দেয়। এই প্রক্রিয়া ছাড়া, ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারীরা লেনদেন করতে সক্ষম হবে না, কারণ ফরেক্সে একটি চুক্তির প্রান্তিক পরিমাণ (১ লট) প্রায় ১০০,০০০ মার্কিন ডলার (ইন্সটাফরেক্সে ১ লট হল ১০,০০০ ইউএস ডলার এবং এটি স্ট্যান্ডার্ড মার্কেট লটের চেয়ে ১০ গুণ ছোট) একটি মধ্যস্থতাকারী (ব্রোকারেজ বা ডিলিং ফার্ম) তার গ্রাহককে কারেন্সি ট্রেড করার জন্য একটি ঋণ প্রদান করে, যা গ্রাহকের জমা করা অর্থের সাথে যোগ হয় যাকে সিকিউরিটি ডিপোজিট বলা হয়। সিকিউরিটি ডিপোজিটের পরিমাণ গ্রাহকের অর্ডারের পরিমাণের ১-৫% হতে পার এবং এটি লিভারেজের উপর নির্ভর করে। লিভারেজ ১:২০, ১:৫০, ১:১০০ এমনকি ১:৫০০ হতে পারে এবং এটি নির্দিষ্ট ব্রোকারের শর্তের উপর নির্ভর করে। এর মানে হল যে $১,০০০ পরিমাণে একটি সিকিউরিটি ডিপোজিট থাকলে, একজন ট্রেডার ক্রেডিট হিসাবে ফরেক্সে ট্রেডিং সম্পাদনের জন্য $২০,০০০ থেকে $৫০০,০০০ পেতে পারেন। মোটা অংকের টাকায় পজিশন খুলে আমরা বেশি লাভ পেতে পারি। কিন্তু ঋণের মাধ্যমে ট্রেড করার কারণে প্রত্যাশিত লাভের আনুপাতিক হারে ক্ষতির ঝুঁকিও বেড়ে যায়। অন্য কথায়, হয় আমাদের লাভ দ্বিগুণ হতে পারে অথবা আনরা সব কিছুই হারাতে পারি।

উপরে যেমন বলা হয়েছে, সিকিউরিটি ডিপোজিটের বিপরীতে একটি ক্রেডিট ইস্যু করা হয়, যাকে মার্জিন ডিপোজিট বা মার্জিনও বলা হয় (যেখান থেকে মার্জিন ট্রেডিং কথাটা এসেছে)। এর মানে হল যে, ফরেক্স মার্কেটে কারেন্সি সহ অনুমাননির্ভর ট্রেডিং এর জন্য ঋণ নেওয়ার ফলে একজন গ্রাহক শুধুমাত্র তার নিজের তহবিলের ঝুঁকি নিয়ে থাকেন। গ্রাহক তার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টে থাকা অর্থের বেশি পরিমাণ অর্থ হারানোর ঝুঁকি নোট পারবেন না। এই বিষয়ে, আন্তর্জাতিক মুদ্রা বাজারের মধ্যস্থতাকারী সংস্থাগুলো সম্পূর্ণরূপে সুরক্ষিত।

কেন ব্রোকার (ডিলিং ফার্ম) আপনাকে ফরেক্স ট্রেডিং এর জন্য লোন নেয়ার সুযোগ দিয়ে থাকে? এই ধরনের প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন উৎস থেকে আয় করা থাকে এবং আমরা সেগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

প্রথমত, তারা গ্রাহকদের প্রতিটি ট্রেডের জন্য কমিশন পেতে পারেএর মানে হল যে আপনি যখন একটি ট্রেড বন্ধ করেন, তখন আপনার পজিশন লাভজনক ছিল কিনা তা নির্বিশেষে কিছু পরিমাণ অর্থ স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ট্রেডিং অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হয়।

দ্বিতীয়ত, এই ধরনের প্রতিষ্ঠানগুলো স্প্রেডের উপর থেকেও আয় করে, কারণ তারা প্রকৃত বাজারের কোট থেকে পাওয়া স্প্রেডের তুলনায় উচ্চতর স্প্রেড দেখিয়ে থাকেমনে রাখবেন যে প্রতিষ্ঠানটি তার নামে এবং তার তহবিলের থেকে (আপনাকে ক্রেডিট হিসাবে ধার দেয়) ব্যাংকের দেওয়া কোট অনুসারে গ্রাহকদের লেনদেনগুলি সম্পাদন করে৷ অন্যদিকে গ্রাহকগণ বর্ধিত স্প্রেড সহ কোটগুলো দেখে থাকে

তৃতীয়ত, যদি একজন গ্রাহক মিনি বা মাইক্রো লট নিয়ে ট্রেড করে, তাহলে সে আসলে ব্রোকারের বিরুদ্ধে "ট্রেড করবে", কারণ আন্তঃব্যাংক লেন-দেনের ক্ষেত্রে মিনি বা মাইক্রো লটের কোনোটিই গ্রহণ করা হয় না। যদি আপনি লাভ করতে পারেন তাহলে ব্রোকার আপনাকে টাকা পরিশোধ করে, আর যদি হেরে যান তাহলে ব্রোকার নিজের অর্থ পকেটে ঢুকিয়ে নেয়। যেহেতু ব্রোকারের লাভ নেওয়ার এই ধরনের একটি স্কিম আছে, আমরা একটি উপসংহারে পৌঁছাতে পারি যে বেশিরভাগ নবীন ব্যবসায়ীরা মাইক্রো এবং মিনি লটের ব্যবসা করে খুব সহজেই তাদের অর্থ হারান। একই ভুল না করার জন্য এবং ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে না থাকার জন্য, আপনি একটি লাইভ অ্যাকাউন্টে ট্রেড করা শুরু করার আগে ফরেক্স ট্রেডিং এর খুঁটিনাটি বুঝে নিন

যে কোনো কোম্পানি আপনাকে দেওয়া ঋণের সাথে সুদ যোগ করতে পারে। এর মানে হল আপনার খোলা সমস্ত পজিশন যা দিনের শেষে বন্ধ করা হয়নি -এর সাথে সুদ যোগ করা হবে । বড়জোর, এর হিসাব শতাংশ হারে হবে (রাতারাতি পুনঃঅর্থায়নের হার), অর্থাৎ দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক যে হারে লোন দেয় সেই হারএই ক্ষেত্রে, ব্যাংক সুদের সম্পর্কে জানা দরকার (এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট অধ্যায়ে বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে)। ভিন্ন ভিন্ন দেশে সুদের হার বিভিন্ন হয়ে থাকে, তাই একটি ট্রেডের মুদ্রা এবং তার প্রকারের (ক্রয় বা বিক্রয়) উপর নির্ভর করে, ব্যাংকের সুদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে প্রত্যাহার বা তার অ্যাকাউন্টে জমা করা হয়।

মার্জিন ট্রেডিংয়ে মুদ্রার কোনো বাস্তবিক পরিশোধ হয় না, এবং মুদ্রার মূল্যায়নের তারিখও অর্থহীন। ইন্টারনেট ব্যবসায়ীরা অনুমানের উপর উপার্জন করে, এক মূল্যে একটি পজিশন খোলে এবং অন্য একটি মূল্যে পজিশনটি বন্ধ করে। ট্রেডাররা যে কারেন্সি ডিপোজিট করেছে তা নির্বিশেষে যেকোন কারেন্সি পেয়ারে ট্রেড পারে। তাছাড়া, ট্রেডাররা যেকোন কারেন্সি পেয়ারের মাধ্যমে শর্ট এবং লং পজিশন খুলতে পারে। সমস্ত লাভ এবং ক্ষতি তাদের সিকিউরিটি ডিপোজিট -এর মুদ্রায় রূপান্তরিত হয়।

একটি উদাহরণের মাধ্যমে, মার্জিন ট্রেডিংয়ের নীতি য়ালোচনা করা যাক। ধরুন আপনি মিনি লট নিয়ে ট্রেড করছেন এবং জাপানি ইয়েনের (USD/JPY) বিপরীতে মার্কিন ডলারের হারের উত্থানের আশা করছেনআপনার অ্যাকাউন্টে ২,০০০ মার্কিন ডলার রয়েছে এবং ১টি লটের আকার ১০,০০০ মার্কিন ডলার৷ ধরুন আপনার ব্রোকার আপনাকে ১:৫০ লিভারেজ প্রদান করে। এর অর্থ হল একটি পজিশন খোলার জন্য, আপনার ২০০ মার্কিন ডলারের একটি সিকিউরিটি ডিপোজিট প্রয়োজন (কারণ ২০০ x ৫০ = ১০,০০০)পজিশন খোলার মুহুর্তে ২০০ ডলারের সিকিউরিটি ডিপোজিট ফ্রিজ করা হয়, তাই আপনার কাছে এখন মাত্র ১,৮০০ ডলার আছে, যাকে বলা হয় ফ্রি মার্জিন। আপনি শুধুমাত্র সেই পরিমাণের জন্য অন্যান্য ডিল করতে পারেন।

কখোনই অ্যাকাউন্টে অল্প পরিমাণ ফ্রি মার্জিন রাখার পরামর্শ দেওয়া হয় না। কারণটি নিম্নরূপ: আপনি একটি পজিশন খোলার সাথে সাথে, জাপানি ইয়েনের বিপরীতে মার্কিন ডলারের হারের ওঠানামা সাময়িকভাবে আপনার জন্য প্রতিকূল হতে পারে। এর মানে হল, আপনি যদি এই মুহুর্তে পজিশন বন্ধ করেন, তাহলে আপনি ক্ষতির সম্মুখীন হবেন, যা আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে। ব্রোকার আপনাকে আপনার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টের চেয়ে বেশি হারাতে দেবে না, অন্যথায় তার নিজের পকেট থেকে অর্থ প্রদান করতে হবে। সুতরাং, যখনই আপনার বর্তমান (ভাসমান) ক্ষতি এমন স্তরে পৌঁছাবে যখন আপনার অ্যাকাউন্টে থাকা ফ্রি মার্জিন সে ক্ষতি পূরণ করতে পারবে না, আপনার পজিশনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে বা ব্রোকার তা অবরুদ্ধ করে দেবে।

পজিশনের এই ধরনের স্বয়ংক্রিয় সমাপ্তি একটি বহুলপ্রচলিত ‘মার্জিন কল’ –এর মাধ্যমে আগেই নির্ধারণ হয়, যা পরবর্তী অধ্যায়ে বিশদ ভাবে বর্ণনা করা হবে। তাই আপনার অ্যাকাউন্টে বেশি টাকা থাকলেই কেবল আপনি মার্জিন কল এড়িয়ে কারেন্সির হঠাত ওঠা-নামার ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার সুযোগ পেতে পারেন। মুদ্রা-হার আপনার অনুকূলে পরিবর্তিত হতে পারে এবং আপনি লাভ করতে পারেন, কিন্তু যদি আপনার ব্যালেন্স যদি সাময়িক নেতিবাচক ওঠানামা সহ্য করতে না পারে তবে আপনি ক্ষতির সম্মুখীন হবেন।

আপনি যত বেশি পজিশন (লট) খুলবেন, তত বেশি ফান্ড আপনার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টে রাখতে হবে। এবার আমাদের উদাহরণে আমরা টি (লট) অবস্থান নয় চারটি খুলি, তাই সিকিউরিটি ডিপোজিট ২০০ মার্কিন ডলার নয় বরং ৮০০ ডলার। ফলস্বরূপ, ফ্রি মার্জিন হবে ১,২০০ মার্কিন ডলার। যেহেতু সাময়িক ক্ষতির হারের গতিবিধি চারটি অবস্থানকেই প্রভাবিত করবে, তাই মার্জিন কল পাওয়ার সুযোগ আনুপাতিকভাবে বৃদ্ধি পায় চার গুণ! পরবর্তী অধ্যায়ে এই ধরনের পরিস্থিতি বিশদভাবে বিবেচনা করা হবে।

এইভাবে, মার্জিন ট্রেডিং নবাগত ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সুযোগ দেয়। ট্রেড করার জন্য একটি উপযুক্ত পদ্ধতির সাথে এটি আপনার লাভের উৎস হতে পারে। অন্যদিকে, সম্ভাব্য আয় বৃদ্ধি সাথে ক্ষতির ঝুঁকিও বৃদ্ধি পায়। সুতরাং মার্জিন ট্রেডিং হল "দ্বিধারী তলোয়ার"। এটি আপনাকে ধনী বা দরিদ্র দুটোই করতে পারে। শুধুমাত্র আপনার বুদ্ধিমত্তা, অভিজ্ঞতা এবং ভাগ্য আপনার সাফল্য নির্ধারক হবে!


আপনার মতামত প্রদান করুন

ধন্যবাদ! আপনি কি আরও কিছু যোগ করতে চান?

প্রাপ্ত উত্তর আপনি কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন (ঐচ্ছিক)

আপনার মতামত আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ.
আমাদের অনলাইন সমীক্ষা সম্পূর্ণ করার সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ৷

smile""